ঘুড়ি ত্রাণ সহায়তা ২০১৭

গত ২৫ তারিখ শুক্রবার স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন এক রঙ্গা এক ঘুড়ি এবং সিলেটের ডাক্তার এনামের সহযোগিতায়
৮০ মন চাউল এবং
সাড়ে ৬ মন মসুর ডাল বিতরণ করা হয়েছে।

সুনামগঞ্জ জেলার জামালগঞ্জ উপজেলার পাগনার হাওর পাড়ের নাজিম নগর, লক্ষ্মীপুর, কামারগাঁও, রসুলপুর, রাজাবাজ, খোজারগাও, দৌলতপুর, বিনাজুরা, লালপুর গ্রামের ১২৫ টি পরিবারের মাঝে এই ত্রাণ বিতরণ করা হয়েছে।
আলোকিত মানুষ ডাক্তার এনামের কো অর্ডিনেশনে সিলেটের একদল বন্ধু-বান্ধব এবং
সুনামগঞ্জের রিপন জামান ভাই এবং স্থানীয় গণ্যমান্য মুরুব্বীদের সহায়তায় ‘এক রঙ্গা এক ঘুড়ি’র স্বেচ্ছাসেবীরা প্রতিটি পরিবারের সদস্যদের হাতে ২ কেজি মসুর ডাল সহ ২৫ কেজি চালের একটি বস্তা তুলে দেন।

ইতিপূর্বে স্থানীয়রা আমাদের এই কাজে সহায়তা করেন এবং তদনুযায়ী প্রতি জনকে একটি করে টোকেন দেয়া হয় এবং
সেই টোকেন দেখিয়ে আজকে সকলে সু শৃঙ্খল ভাবে ত্রাণ সংগ্রহ করে।

ত্রাণ নিতে আসা প্রতিটি মানুষই ২৫ কেজির বস্তা পেয়ে কিযে খুশী হয়েছে তা বলার অপেক্ষা রাখেনা।

প্রথম ধাপের এই ত্রাণ বিতরণ কার্যক্রম সফলভাবে সম্পন্ন করে সন্ধ্যায় ঘুড়ি টিমের সদস্যরা সিলেটে ফিরে এসেছে। ত্রাণ বিতরণ শেষে সুনামগঞ্জের রিপন জামান ভাইয়ের ঘরোয়া হোটেলে দুপুরের চমৎকার খাবার খেয়ে তৃপ্তি পেয়েছি। অক্লান্ত পরিশ্রম করেছেন সিলেট এবং সুনামগঞ্জের সকলে; তাদের সকলের জন্য ভালোবাসা।
বিগত কয়েকদিনে বন্যার্তদের সহায়তায় যারা আমাদের সঙ্গে যুক্ত হয়েছেন তাদের সকলের প্রতি অশেষ ভালোবাসা জানাই।

ঈদের পর আমরা ২য় দফায় উত্তরাঞ্চলের একটি জেলায় ত্রাণ কার্যক্রম পরিচালনা করবো। যদি সম্ভব হয় তবে আমরা বন্যা পরবর্তী পুনর্বাসনেও কাজ করতে আগ্রহী।
সকলের সহযোগিতা কামনা করছে এক রঙ্গা এক ঘুড়ি।

আসুন সবাই একসাথে বন্যার্তদের সহায় হয়ে থাকি!
.
.

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

You may use these HTML tags and attributes: <a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <s> <strike> <strong>